নারায়ণগঞ্জে ট্রাকশ্রমিকদের সড়ক অবরোধ

মন্ত্রিসভায় নতুন সড়ক পরিবহন আইনের খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদনের পর নারায়ণগঞ্জে আন্তজেলা ট্রাকশ্রমিকেরা সড়ক অবরোধ করেছেন। এ সময় উত্তেজিত শ্রমিকেরা বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করেন।

নতুন আইন অনুযায়ী বেপরোয়াভাবে বা অবহেলা করে গাড়ি চালানোর কারণে দুর্ঘটনায় কেউ গুরুতর আহত বা কারও মৃত্যু হলে চালককে সর্বোচ্চ পাঁচ বছর কারাদণ্ড বা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ড দেওয়া হবে। আগের আইনে এই শাস্তি ছিল সর্বোচ্চ তিন বছর। নতুন আইনে বলা হয়েছে, তদন্তে যদি দেখা যায় উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে চালক বেপরোয়া গাড়ি চালিয়ে হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন, তাহলে দণ্ডবিধি ৩০২ অনুযায়ী শাস্তি দেওয়া হবে। অর্থাৎ সাজা হবে মৃত্যুদণ্ড। তবে এটা তদন্ত সাপেক্ষে এবং তথ্যের ওপর ভিত্তি করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ধারা নির্ধারণ করবে।

মন্ত্রিসভায় আইন অনুমোদন হওয়ার খবরে পেয়ে সোমবার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কের পাগলা এলাকায় আন্তজেলা ট্রাক ইউনিয়ন পাগলা শাখার শ্রমিকেরা এ কর্মসূচি পালন করেন। এতে ওই সড়কে আধা ঘণ্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ আন্তজেলা ট্রাক চালক ইউনিয়ন পাগলা শাখার সভাপতি কাউসার আহম্মেদ পলাশ বলেন, ‘আইনের বিষয়টি ইলেকট্রনিক মিডিয়ার মাধ্যমে জানতে পেরে তাৎক্ষণিক উত্তেজিত হয়ে ট্রাকশ্রমিকেরা সড়ক অবরোধে করে। বিষয়টি আমি জানার সঙ্গে সঙ্গে নেতৃবৃন্দকে শ্রমিকদের শান্ত করে অবরোধ তুলে নেওয়ার জন্য বলি। আমাদের নেতৃবৃন্দ ও পুলিশের তৎপরতায় শ্রমিকেরা অবরোধ তুলে নেয়।’

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঞ্জুর কাদের বলেন, কাউসার আহম্মেদ পলাশের অনুসারী ট্রাকশ্রমিকেরা এলোপাতাড়ি ট্রাক ফেলে সড়ক অবরোধ করেন। তাঁরা ট্রাক, কাভার্ড ভ্যানসহ অন্যান্য যান চলাচলে বাধার সৃষ্টি করেন। খবর পেয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে সড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। তবে ভাঙচুরের ঘটনায় কেউ কোনো অভিযোগ দেয়নি

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*